ইউভেন্তুস-আতলেতিকোর লড়াই ড্র

0
263

খুলনাটাইমস স্পোর্টস: শুরু থেকে আক্রমণ-প্রতি আক্রমণে জমে উঠলো ম্যাচ। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে দুই গোল করে এগিয়ে গেলো ইউভেন্তুস। তবে জিততে পারল না ইটালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা। শেষ দিকে ঘুরে দাঁড়িয়ে ঘরের মাঠে হার এড়ালো আতলেতিকো মাদ্রিদ।
উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচটি শেষ হয়েছে ২-২ সমতায়। বুধবার রাতে রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে চারটি গোলই হয় দ্বিতীয়ার্ধে।
দশম মিনিটে ম্যাচের প্রথম ভালো সুযোগটি তৈরি করে আতলেতিকো। সঙ্গে লেগে থাকা ডিফেন্ডারদের এড়াতে পারলেও ইউভেন্তুস গোলরক্ষক ভয়চেখ স্ট্যাসনিকে পরাস্ত করতে পারেননি জোয়াও ফেলিক্স।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই প্রতি আক্রমণে এগিয়ে যায় ইউভেন্তুস। ৪৮তম মিনিটে নিজেদের অর্ধ থেকে বল পেয়ে কিছুটা এগিয়ে গনসালো হিগুয়াইন খুঁজে নেন হুয়ান কুয়াদরাদোকে। কলিম্বয়ান এই মিডফিল্ডার বাঁ পায়ের বুলেট গতির শটে বল পাঠান জালে।
আরেকটি প্রতি আক্রমণ থেকে ৬৫তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ায় ইটালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা। আলেক্স সান্দ্রোর দারুণ ক্রসে ব্লেইস মাতুইদির হেড আতলেতিকোর গোলরক্ষক ইয়ান ওবলাকের গায়ে লেগে জালে জড়ায়।
চার মিনিট পর ব্যবধান কমায় আতলেতিকো। হোসে হিমেনেসের হেডে বল পেয়ে স্তেফান সাভিচের খুব কাছ থেকে নেওয়া হেড ফেরানোর কোনো সুযোগই ছিল না ইউভেন্তুস গোলরক্ষকের।
খানিক পর হিগুয়াইনের শট ফিরিয়ে দেন আতলেতিকো গোলরক্ষক। ফিরতি বলে মাতুইদির শট গোললাইন থেকে ফেরান কিরান ট্রিপিয়ার।
৯০তম মিনিটে ট্রিপিয়ারের কর্নার থেকে দারুণ হেডে জাল খুঁজে নেন এক্তর এররেরা। স্কোরলাইনে আসে ২-২ সমতা।
যোগ করা সময়ে নায়ক হওয়ার সুযোগ এসেছিল রোনালদোর সামনে। কয়েকজনকে কাটিয়ে কঠিন কাজটা করে ফেলেছিলেন। কিন্তু শট রাখতে পারেননি লক্ষ্যে। জেতাও হয়ে ওঠেনি ইউভেন্তুসের।
এই গ্রুপের অন্য ম্যাচে লোকোমোতিভ মস্কোর বিপক্ষে ২-১ গোলে হেরেছে বেয়ার লেভারকুজেন।