আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চন্দনপুরে প্রার্থী হতে চান মফিজুল ইসলাম

0
195

কলারোয়া প্রতিনিধি:
আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কলারোয়া উপজেলার ৭ নং চন্দনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী হতে চান চন্দনপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পপাদক সমাজসেবক মফিজুল ইসলাম। বিভিন্ন সমাজিক কর্মকান্ডের মাধ্যামে ইতিমধ্যে এলাকায় তিনি বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। তিনি ছাত্র জীবন থেকে সততা ও নিষ্ঠার সাথে এলাকার অসহায় মানুষের পাশে থেকে সমাজসেবায় বিশেষ অবদান রেখেছেন। একজন সমাজসেবক হিসাবে জনসেবার কারণে সাধারণ মানুষের কাছে তিনি অত্যন্ত আস্থাভাজন, তিনি দীর্ঘদিন ধরে নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন সাধারণ মানুষের সেবায়। সাধ্য অনুযায়ী সাহায্য করেছেন সাধারণ মানুষের। ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ও মহামারী করোনায় ছিলেন সাধারণ মানুষের সাথে। করোনার এই মহা দুর্যোগেও তিনি শুরু থেকে তার সাধ্য অনুযায়ী সাধারণ মানুষের পাশে থেকে বিভিন্ন ধরনের সাহায্য সহযোগিতা করে গেছেন। তিনি নিজেকে মানুষের সেবায় উৎসর্গ করে দিতে চান বাকিটা জীবন। তিনি জনগণের সেবক হিসেবে কাজ করে যেতে চান। চন্দনপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পপাদক সমাজসেবক মফিজুল ইসলাম আরো বলেন, আমি ২০২০ সালে আসান্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী হয়েছে। আমি ছাত্র জীবন থেকে সাধারণ মানুষের সেবা নিশ্চিত করে দলমত নির্বিশেষে সবার আস্থা ও ভালোবাসা অর্জন করেছি। তাই আমি চন্দনপুর ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে ইউনিয়নবাসীর স্বপ্ন পূরণে অবশিষ্ট কাজ সম্পন্ন করব। যাতে আমি মারা যাওয়ার পরও মানুষ আমাকে মনে রাখে। আমি আমার ইউনিয়ন সহ সাধারন মানুষের কাছে দোয়া প্রার্থী সকলে আমার জন্য দোয়া করবেন। চন্দনপুর ইউনিয়নের বীর মুক্তিযোদ্ধা আমজের আলী, মোসলেম আলী, শাহাজাহান আলী, গোলাম কুদ্দুস, ইমাম আলী, মোহর আলী বলেন,আমাদের বাড়ীর ছেলে মফিজুল ইসলাম। এলাকার মানুষের পাশে থেকে সাহায্য সহযোগিতা করা দেখে আমরা মুগ্ধ হয়েছে। আসান্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মফিজুল ইসলাম চেয়ারম্যান হলে এলাকায় উন্নয়ন হতো। সাধারণ মানুষও ভাল থাকতো। আমাদের দাবী এবার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীক নৌকা যেন মফিজুল ইসলাম পান। এবিষয়ে চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী মফিজুল ইসলাম বলেন, আমি ভালো কি খারাপ তা ইউনিয়নবাসী জবাব দেবেন। আমার পিতা ছিলেন একজন কৃষক, আমি তারই ছেলে বর্তমানে ইউনিয়নবাসীর ভালবাসা নিয়ে কলারোয়া উপজেলা ইউসিসিএ লিঃ এর প্রধান পরিদর্শক হিসাবে কর্মরত আছি।