আশাশুনিতে বসত বাড়ি জবর দখল আতঙ্কে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে সংখ্যালঘু পরিবার

0
424

মইনুল ইসলাম,আশাশুনি:
সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের পাইথালী গ্রামে একটি ঋষি পল্লীতে হামলা চালিয়ে শত বছরী বসত ভিটা জবর দখল করাকে কেন্দ্র করে অসহায় সংখ্যালঘু পরিবারটি এখন আতঙ্কে নিঘুম রাত কাটাচ্ছে বলে জানিয়েছে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারটি। এব্যাপারে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগে ও সরোজমিনে ঘুরে জানা গেছে, বিগত ১শ বছর ধরে পূর্ব পুরুষগণ শান্তিপূর্ন ভাবে পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করে আসছে। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী গত মঙ্গলবার সকালে হাজিডাঙ্গা গ্রামের চিহ্নিত ভূমিদস্যু, হত্যা ও নাশকতা সহ একাধিক মামলার আসামী সুলতান সরদারের পুত্র শাহাজুদ্দিন তার বাহিনী কবিরুল ইসলাম, শাহাজুদ্দীন ও ছয়রুদ্দীন সরদার, আছাফুর, কামরুল ইসলাম সহ অজ্ঞাত ৫/৬ জন দলবদ্ধ হয়ে ধারালো অস্ত্র সস্ত্রে সঞ্জিত হয়ে রঞ্জু দাশের পুত্র তুষার দাশের বসত ভিটায় হামলা চালায় ও জবর দখলের চেষ্টা চালায়। অবশেষে তুষার দাশের স্ত্রী বাধা প্রদান করলে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে একটি ঘর নির্মাণ করতে থাকে।

খবর পেয়ে স্বামী তুষার দাশসহ তার পরিবারের লোকজন ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে বাধা প্রদান করে। তারা কোনো কিছু তোয়াক্কা না করে বরণ উল্টো ঋষি পরিবারকে মারপিট করতে উদ্ধোত হলে জীবন রক্ষায় ঘটনাস্থাল ছেড়ে ঋষি পরিবারটি পালিয়ে যান। অভিযোগ পেয়ে আশাশুনি থানার এস আই প্রদীপ সানা সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে ঐ বসত ভিটায় ঘর নির্মাণ সহ সকল কার্যক্রম বন্ধ করার নির্দেশ দেন ও উভয় পক্ষকে আগামী শুক্রবার সকালে স্ব-স্ব কাজগপত্র নিয়ে থানায় হাজির হওয়ার জন্য বলা হয়েছে। পুলিশ ঘটনা স্থান ত্যাগ করার পরপরই শাহাজুদ্দিন সহ তার সন্ত্রাসী বাহিনী ঋষি পরিবারকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে।

এমনকি তারা ২৪ ঘন্টার মধ্যে পুলিশের কাছে দাখিলকৃত অভিযোগ তুলে না নিলে তাদের অবস্থা পূর্বের মতো ভয়ংকার হবে বলে হুংকার দিতে থাকেন। এমতাবস্থায় ঋষি পরিবারটি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। বিষটি নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে উদ্বেগ উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছে। দ্রæত ব্যবস্থা গ্রহনে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার সহ আশাশুনি অফিসার ইনচার্জের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন অসহায় সংখ্যা লঘু ঋষি পরিবারটি।#