আজ থেকে শুরু নবাবগঞ্জে শার্দীয় দূর্গা উৎসব

0
940

দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ চলে এল মহালায়া আকাশে বাতাসে যখন পূজো পূজো গন্ধ,শরতের আকাশে পেজা তুলোর রাশির মতো মেঘ ভেসে বেড়াচ্ছে। মাঠে ঘাটে কাশ ফুলের ছড়া ছড়ি বাতাশে শিউলি ফুলের গন্ধে মাতোয়ারা আবাল বৃদ্ধ বনিতা। মেতে উঠতে চলেছে শারদীয়া উৎসবে। তারই ধারা বাহিকতায় দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলাতেও হিন্দু তথা স্বনাতন ধর্মালম্বীদের শারদিয় দূর্গা উৎসব আজ থেকে শুরু । বছর ঘুরে আবারো হিন্দু তথা স্বনাতন ধর্মাবলম্বীদের প্রাণের শারদীয় দুর্গা পূজার আগমনের সুবাতাস বইতে শুরু করেছে। আজ ১৫ তারিখ মহা-ষষ্ঠীর মধ্য দিয়ে শুরু হবে শারদীয়া দুর্গাপূজা আগামী ১৯ তারিখে প্রতিমা বিসর্জনের পর এর সমাপ্তি ঘটবে। এবার মা দুর্গা আসবেন ঘোড়ায় চড়ে, আর পূজা শেষে ফিরে যাবেন দোলায় করে।
দূর্গতিনাশিনী দেবী দুর্গার আগমনী বার্তায় ভক্তকূলে আনন্দের জোয়ার সৃষ্টি হয়ে থাকে। এ কারণে দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার পাল বাড়িতে শারদীয় এ উৎসবের হাওয়া বইছে। কাদা-মাটি, বাঁশ, খড়, সুতলি দিয়ে শৈল্পিক ছোঁয়ায় তিলতিল করে গড়ে তোলা দেবী দুর্গার প্রতিমা তৈরিতে দিনরাত ব্যস্ত সময় পার করছেন পাল পাড়ায় পুরুষের পাশাপাশি নারী কারিগররা। নবাবগঞ্জ উপজেলার পাল পাড়া গ্রামে গিয়ে চারিদিকে ব্যস্ততার ছাপ পরিলক্ষিত হয়। প্রতিমা তৈরির পর শুরু হবে রূপায়নের কাজ শেষ। রঙ-তুলির শৈল্পিক আঁচড়ে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে দেবীর মনকাড়া প্রতিচ্ছবি। তাই যেনো ঘুম নেই পাল বাড়িতে। শুধু প্রতিমা তৈরি নয়, বিশাল বাজেটের বিভিন্ন থিমের আদলে তৈরি করা হয়েছে প্রতিমা মন্ডবও।
ঐতিহ্য ধরে রেখে এবারও বিশাল বাজেটের প্রতিমা মন্ডবগুলো সাজানো হচ্ছে আকর্ষণীয় থিমের আদলে। উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শৈবাল দাশ সুমন বলেন, ‘বিগত দশ বছরের যে রেকর্ড এবার আমরা তা ভাঙ্গার চেষ্টা করছি।’
এবার নবাবগঞ্জে ৮০ টি পূজামন্ডপে অনুষ্ঠিত হবে শারদীয়া দুর্গোৎসব। নবাবগঞ্জ উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের আহব্বায়ক অমল চক্রবর্তী বলেন, ‘দেশের পরিস্থিতি ভাল আর পুলিশ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। তারপরও আমরা প্রত্যেক পূজা মন্ডপকে নির্দেশ দিয়েছি ১০ থেকে ২০ জন ব্যাচধারী স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রাখার জন্য। সন্দেহজনক কাউকে দেখলে চার্জ করার জন্য।