আওয়ামী মুক্তিযুদ্ধলীগের ক্ষোভ ও নিন্দা জ্ঞাপন

0
291

খবর বিজ্ঞপ্তি:
খুলনা জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি, মুক্তিযোদ্ধা মরহুম এ্যাড. কাজী আব্দুস সালাম এর একমাত্র অসুস্থ্য ছেলে কাজী জিল্লুর রহমান সিদ্দিকীর ময়লাপোতাস্থ কাজী কমিউনিকেশন নামীয় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বিবিবি-১ খুলনার অসাধু কর্মচারী দ্বারা অন্যায় ভাবে প্রায় দেড় লক্ষ টাকার বিল বেশী করার ঘটনা প্রি-পেইড মিটার লাগানোর সময় উৎঘাটন হওয়ার ঘটনা স্থানীয় দৈনিকে প্রকাশিত হয়। খবরের কাগজের বিবৃতি এবং সংশ্লিষ্ট ক্ষতিগ্রস্থ্য ব্যক্তি বক্তব্য অনুযায়ী মিটারটির হিসাব নম্বর-১০১১৫৬৬৬৯ এবং মিটার নম্বর-১৮১০৪। ওজোপাডিকো কর্তৃপক্ষের কাছে বার বার অভিযোগ দেওয়া স্বত্তেও কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযুদ্ধলীগ এর পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। অবিলম্বে গ্রাহককে তার নিকট থেকে অতিরিক্ত গ্রহণকৃত টাকা ফেরত প্রদান ও দায়ীদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী করা হয়। অন্যথায় উদ্ভুত সকল পরিস্থিতির জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবেন।
বিবৃতিদাতারা হলেন সংগঠনের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা কে.এম.কবির, সাধারণ সম্পাদক বিশ^াস জাফর আহম্মদ, মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর শিকদার মনিরুজ্জামান, ইদ্রিস আলী খান, কাজী জাহাঙ্গীর হোসেন, এস এম কবিরুল ইসলাম, শেখ সাত্তারুজ্জামান, এস,এম, মুজিবুর রহমান, মোঃ আবুল হোসেন, এস এম কবিরুজ্জামান, সৈয়দ আহম্মদ হোসেন, মোঃ সাখাওয়াত হোসেন, মোঃ মোশারেফ হোসেন মোল্লা, মোঃ মনিরুজ্জামান, মোঃ রফিকুল ইসলাম, রফিক উদ্দিন বাবলু, এম,এম, জিয়াউল ইসলাম, নুর ইসলাম মোল্লা, শেখ আরিজ হাসান, শেখ মোস্তাফিজুর রহমান, মোঃ হেমায়েত উদ্দিন, দোলোয়ার হাসান দিলান, বজলুর রহমান, রিয়াজুল ইসলাম, ক্বারী মিজানুর রহমান, হালদার ইবারত আলী, সৈয়দ হাফিজুর রহমান, মোঃ হায়দার আলী , আমিনুল ইসলাম, আবু সাঈদ, ফিরোজ আহম্মেদ প্রমুখ। এ ধরণের ঘটনা আরও আছে কিনা তা উদঘাটন ও সমাজের কোন মানুষ এভাবে প্রতারণার শিকার না হয়, সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে সুদৃষ্টি রাখতে অনুরোধ করা হল। এ বিষয়ে গণ সচেতনতা সৃষ্টি করা দরকার।