অভিযোগ করেও প্রতিকার মিলছে না : পাইকগাছায় বর্জ্য মলমূত্রে পরিবেশ দূষিত

0
552

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
পাইকগাছা পৌরসভায় দীর্ঘদিনের অব্যবস্থাপনা ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দেখভালের অভাবে মানব বর্জ্য মলমূত্রে পরিবেশ দূষিত হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ড্রেনে আটকে থাকা বর্জের দুর্গন্ধে এলাকার মানুষ স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছেন। উপজেলা আইনশৃংখলা কমিটিসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেও প্রতিকার মিলছে না বলে ভুক্তভোগীদের অভিযোগ।

জানা গেছে, পাইকগাছা প্রথম শ্রেণীর পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডে জিরো পয়েন্ট এলাকায় বাড়ির সামনে দিয়ে পানি নিষ্কাশনের জন্য একটি সেমি পাকা ড্রেন রয়েছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, জিরো পয়েন্টে অপরিকল্পিতভাবে কাঁচা-পাকা ল্যাট্রিন তৈরি করে মানুষের মল-মূত্র সরাসরি পানি সরবরাহের ড্রেনে ছেড়ে দেয়া হচ্ছে এবং ব্যবস্থাপনা না থাকায় উন্মুক্ত ড্রেনে আটকে পড়া মল-মূত্র বর্জ্য ছাপিয়ে বাড়ির আঙ্গিনায় ছড়িয়ে পড়ছে।

অভিযোগ উঠেছে, স্থানীরা বহুবার ওয়ার্ড কাউন্সিলর, পৌর মেয়রসহ বিভিন্ন জায়গায় ধন্যা দিয়েও সমস্যার সমাধান করতে পারি নি। এ দিকে অপরিকল্পিত কাঁচা-পাকা ল্যাট্রিন ব্যবহার করে এখান থেকে সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে অর্থও গ্রহণ করা হচ্ছে বলে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর এস,এম, তৈয়েবুর রহমান স্বীকার করে নিজের ব্যর্থতার কথা জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে ইতোমধ্যে উপজেলা চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে উপজেলা আইনশৃংখলা কমিটির সভায় উত্থাপন করা হলেও সংশ্লিষ্ট পৌর কর্তৃপক্ষ এ পর্যন্ত কোন কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে না পারায় স্থানীয় তাপস কুমার সরকার, প্রশান্ত কুমার মন্ডল, অনিতা মন্ডল, অনিল কৃষ্ণ ঢালী, মুক্তিপদ মন্ডলসহ একাধিক ব্যক্তি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের হস্তক্ষেপ কামনা করে অভিযোগ করেছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ফকরুল হাসান সমস্যা ও সংকট নিরসনের জন্য পৌর মেয়রকে লিখিতভাবে অনুরোধ জানিয়েছেন। এ বিষয়ে মোটর শ্রমিকনেতা শেখ মিথুন মধু এলাকাবাসী ও তারাও কষ্টের কথা জানিয়ে ২/১ দিনের মধ্যে স্থায়ী সমাধান মিলবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন। পৌর মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর জানান, বিষয়টি খুব গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে।