শেখ রাসেল জাতীয় উদ্যানের মেলায় উপছে পড়া ভীড় পর্যটকদের

0
379

এম এ সাজেদুল ইসলাম(সাগর), নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর) থেকে:
গত শনিবার ০১জুন দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মশিউররহমানের সভাপতিত্বে জাতীয় উদ্যান ঘেষা আশুড়ার বিলে শেখ ফজিলাতুন্নেছাকাঠের সেতুর উদ্বোধন করেন দিনাজপুর ৬ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ শিবলী সাদিকএমপি ও বিশেষ অতিথি দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মোঃ মাহামুদুল আলম। উদ্বোধনেরপরেই তিন দিন ব্যপি মেলার আয়োজন করেন নবাবগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন। আর ঈদেরপ্রথম দিনেই মেলায় সকাল থেকেই ছোট বড় নানা শ্রেনীর মানুষের উপছে পড়া ভীড়।
পর্যটকদের আকর্ষনে কাঠেরআঁকাবাঁকা সেতুটি নির্মান থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারেমুগ্ধ হয়েছে দেশের পর্যটকের। শেখ ফজিলাতুন্নেছা আঁকাবাঁকা কাঠের সেতুটিএকটি নজর দেখার জন্য দূর দূরান্ত থেকে ছুটে এসেছেন ভ্রমন পিপাশু পর্যটকরা। দেশেরঐতিহ্যবাহিজাতীয় উদ্যান ঘেষা আশুড়ার বিল রয়েছে। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আরমনমাতানো নান্দনিক এই বিলটির বর্ষা মৌসুমে দেশি প্রজাতির মাছ, হারিয়ে যাওয়াজাতীয় শাপলা ফুলের বিস্তার। এমন পরিবেশ মনমাতানো দৃশ্য ও আশুড়ার বিলের উপরআঁকাবাঁকা কাঠের সেতু দর্শানাদির মন কেড়েছেন। সেতুর দু’পাশে বিশাল বন বনেরভেতরে বসার জায়গা, বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা আর এত মানুষের ভীড় সব মিলেপর্যটকদের যেন মুগ্ধ করেছেন।
মেলাকে কেন্দ্র করে বসেছে বিভন্নি দোকান, রয়েছে নাকের দোলা এবং আশুড়ার বিলে বিভিন্ন রংবে রং এর নৈকা। নৈকায় চড়ে ভ্রমন পিপাশু মানুষরা উপভোগ করছে আশুড়ার বিলসহ পুরো জাতয়ী উদ্যান।
এ ব্যাপারে চরকাই রেঞ্জের বিট অফিসার নিশিকান্ত মালাকার বলেন, এই কাঠের ব্রিজ র্নিমানে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আরমনমাতানো নান্দনিক এই বিলটির বর্ষা মৌসুমে দেশি প্রজাতির মাছ, হারিয়ে যাওয়াজাতীয় শাপলা ফুলের বিস্তারসহ নানা উদ্যোগ গ্রহন কারায় এখন সুন্দর লাগতেছে।
জানা গেছে নবাবগঞ্জ উপজেলানির্বাহী অফিসার মোঃ মশিউর রহমান উপজেলায় যোগদান করার পর থেকেই বিলটিরগুরুত্ব তুলে ধরতে নির্বাহী অফিসার নেন একের পর এক উদ্যোগ। শাপলা ফুলের বংশবিস্তারে ফুলের চারা রোপন আশুড়ার বিলের ধারে বিভিন্ন প্রজাতির ফুলের চারালাগানো , জাতীয় উদ্যানের শাল গাছে পাখির অভয়াশ্রমের জন্য মাটির হাড়ি ঝুলিয়েপাখির আবাসস্থানের ব্যবস্থা করণ ইত্যাদি।
পর্যটকেরা ঘুরে ফিরে দেখে এমন সুন্দর উদ্যোক গ্রহন করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মশিউর রহমানকে স্বাদুবাদ ও ধন্যবাদ জানান।
পর্যটকদের সুবিধার্থে ওআধুনিকায়নে নেয়া হয়েছে বিভিন্ন উদ্যোগ। পর্যটকরা এখানে সারা বছর আসতেপারবেন। এছাড়াও জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর দিনাজপুরের পক্ষ থেকেউন্নতমানের ল্যাট্নি , সহ বিদ্যুৎ সংযোগের ব্যবস্থা গ্রহন করেছেউপজেলা প্রশাষন।