যে কারণে এনামুল-তাইজুলকে ফেরানো

0
87

খুলনাটাইমস স্পোর্টস: শ্রীলঙ্কা সফরে সাকিব-লিটন ছুটিতে থাকায় এনামুল-তাইজুল সুযোগ পেয়েছেন । দুজনই ওয়ানডে দলে জায়গা পেলেন লম্বা বিরতিতে। তাঁর দলে নেওয়ার ব্যাখ্যা দিয়েছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন
এনামুল হক-তাইজুল ইসলাম দুজনই ভীষণ চেষ্টা করেছিলেন বিশ্বকাপ দলে থাকার। থাকতে পারেননি। দুজন এক সঙ্গেই ফিরলেন ওয়ানডে দলে, তবে সেটি বিশ্বকাপ-পরবর্তী সিরিজে।
গত ডিসেম্বরে জিম্বাবুয়ে-ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্টে খুব ভালো বোলিং করার পর তাইজুল বলছিলেন, ছন্দটা তিনি বিপিএলেও ধরে রাখতে চান। বিপিএলে ভালো করতে পারলে তাঁর ধারণা ছিল বিশ্বকাপ দলে ঠাঁই পাবেন। লক্ষ্যটা তাঁর পূরণ হয়নি। এনামুল ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে সেঞ্চুরির হ্যাটট্রিক করার পর যখন শুনলেন বিশ্বকাপে দলে জায়গা পাওয়ার সম্ভাবনাই নেইÑভীষণ হতোদ্যমই হয়ে পড়েছিলেন।
বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দল বেশ আগ থেকেই তৈরি হয়ে গিয়েছিল। টপ অর্ডারে লিটন দাস-সৌম্য সরকার জায়গা নিশ্চিত করে ফেলায় এনামুলের সুযোগ ছিল না। সাকিব আল হাসান থাকায় ইংলিশ কন্ডিশনে তাইজুলের মতো আরেকজন বাঁহাতি স্পিনার রাখারও প্রয়োজন মনে করেননি নির্বাচকেরা। শ্রীলঙ্কা সিরিজে সাকিব বিশ্রামে, লিটন ছুটি নিয়েছেন ব্যক্তিগত কারণে। এতেই ভাগ্য খুলেছে এনামুল আর তাইজুলের।
এনামুল বাংলাদেশ ওয়ানডে দলে ফিরলেন এক বছর পর। আর তাইজুল ফিরলেন আড়াই বছর পর। সবশেষ রঙিন পোশাকে এ বাঁহাতি স্পিনার খেলেছেন ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে। তবে গত কদিনে দুজনের পারফরম্যান্স নির্বাচকদের অনুপ্রাণিত করেছে তাঁদের দলে অন্তর্ভুক্ত করতে। গত সপ্তাহে এনামুল খুলনায় আফগানিস্তান ‘এ’ দলের বিপক্ষে খেলেছেন অপরাজিত ১২১ রানের ইনিংস। আর তাইজুল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) একাদশের হয়ে বিদর্ভ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের বিপক্ষে পেয়েছেন ইনিংসে ৮ উইকেট।
দুজনকে শ্রীলঙ্কা সফরে সুযোগ দেওয়া প্রসঙ্গে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীনের ব্যাখ্যা, ‘একজন বাঁহাতি স্পিনার দরকার, এ কারণে তাইজুল ইসলাম যাচ্ছে। আর এনামুল হক যাচ্ছে লিটনের জায়গায়। ঘরোয়া ক্রিকেটে ও ধারাবাহিক ভালো খেলছে। সব সংস্করণেই ভালো খেলছে। এ দল, এইচপি কোচদের কাছে তার (এনামুল) সম্পর্কে ইতিবাচক রিপোর্ট পেয়েছি।’
এনামুলকে নিতে আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কাজ করেছে। টপ অর্ডারে তামিম-সৌম্য দুজনই বাঁহাতি হওয়ায় একজন ডানহাতি ব্যাটসম্যান অন্তর্ভুক্ত করতে উৎসাহিত করেছে বলে জানালেন মিনহাজুল, ‘টপ অর্ডারে আমাদের একজন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান দরকার ছিল। টপ অর্ডারে দুজনই বাঁহাতি (তামিম-সৌম্য), একজন ডানহাতি ব্যাটসম্যান আমাদের দরকার ছিল।’
বিশ্বকাপে বাংলাদেশ গিয়েছিল চোট-চিন্তা নিয়ে। টুর্নামেন্ট থেকে ফিরেও এ চিন্তা থেকে মুক্ত হতে পারেনি টিম ম্যানেজমেন্ট। মাহমুদউল্লাহ, মুশফিকুর রহিম পুরো সেরে উঠেছেন কি না, সেটি এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে মিনহাজুল আশাবাদী, শ্রীলঙ্কায় সিরিজ শুরু হওয়ার আগে সবাই শত ভাগ ফিট হয়ে যাবেন।
বিশ্বকাপের ক্লান্তি না কাটতেই আরেকটা সিরিজ হলেও বাংলাদেশ এটি গুরুত্বের সঙ্গেই নিচ্ছে। বিশ্বকাপের ব্যর্থতা কাটিয়ে ওঠাই শুধু নয়, ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে নিজেদের অবস্থান শক্ত রাখতে এ সিরিজে ভালো করতে হবে।