মোড়েলগঞ্জে ১০ টাকার চাল বিতরণে আদায় ২০ টাকা

0
70

এম.পলাশ শরীফ, মোড়েলগঞ্জ॥
খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় হতদরিদ্রদের মাঝে ১০ টাকা কেজি জনপ্রতি ৩০ কেজি চাল বিতরণে নানাবিধ অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন সুবিধাভোগীরা।অতিরিক্ত আদায় করা হয়েছে সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে প্রতি বস্তায় ২০ টাকা করে।
বুধবার দুপুরে মোড়েলগঞ্জের বহরবুনিয়া ইউনিয়নের ফুলহাতা বাজার চাল বিক্রেতা ডিলার রফিকুল ইসলাম, কলেজ বাজারে শাহাজামাল পারভেজ ও ঘষিয়াখালী বাজারের উজ্জল ফকির কার্ডধারীদের নিকট থেকে প্রতি ৩০ কেজি চালের বস্তায় ৩২০ টাকা করে আদায় করেছে। তাৎক্ষনিক স্থানীয়দের প্রতিবাদে তোপের মুখে পড়ে ডিলাররা।
একই দিনে খাউলিয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে চাল বিতরণকালে ডিলার শেখ কামাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে সুবিধাভোগীরা অভিযোগ তুলেছেন কার্ডধারী অনেকের নাম পরিবর্তন করা হয়েছে। চাল আনতে গেলে ডিলার জানান, তাদের নাম নেই। তাদের দীর্ঘক্ষণ দাড়িয়ে থেকে বাড়ি যেতে হচ্ছে খালি হাতে। সুবিধাভোগী চালিতাবুনিয়া গ্রামের নজরুল আকন (৬০), খাউলিয়া গ্রামের আছিয়া খাতুন(৫২), মহারাজ শেখ(৪৮), সালেহা বেগম (৫১)সহ একাধিক নাম পরিবর্তন কার্ডধারীরা ক্ষোভের সাথে জানান, বিগত ২ বছর ধরে তারা চাল পেয়েছে। হঠাৎ করে তাদের নাম কেটে দিয়েছেন চেয়ারম্যান-মেম্বররা। স্থানীয়ভাবে চেয়ারম্যানের প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীর গ্রুপ করেছেন তারা। তাই তাদের নাম কেটে দেওয়া হয়েছে।
সুবিধাভোগীদের অভিযোগ এ সব অনিয়মের ঘটনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. কামরুজ্জামান জানতে পেরে তাৎক্ষনিক এসব ডিলারকে চাল বিতরন বন্ধ করার নির্দেশ দেন।
এ সর্ম্পকে মোড়েলগঞ্জ উপজেলা খাদ্যগুদাম ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, চাল বিতরণে ডিলারদের অনিয়মের বিষয়টি তিনি শুনেছেন। তাৎক্ষনিক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে। উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের পরবর্তীতে নির্দেশনা অনুযায়ী চাল বিতরণ করা হবে।
এ বিষয়ে খাউলিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাষ্টার আবুল খায়ের বলেন, স্থানীয় রাজনৈতিক গ্রুপের বিষয় নয়। কে কোন গ্রুপ কেরেছে সেটা কখনও দেখা হয়নি। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী হতদরিদ্র সুবিধাভোগীরা সরকারের একাধিক সুবিধা ভোগ করতে পারবে না।



একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here