মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে হলে আগে পরিবারকেই সচেতনতা হতে হবে : জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ

0
89

খবর বিজ্ঞপ্তি
খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ বলেন, দেশকে মাদকমুক্ত সমাজ হিসেবে গড়ে তুলতে হলে আগে পরিবারকেই সচেতনতা হতে হবে। পিতা-মাতাকে ছেলেমেয়েদের সাথে বন্ধুত্ব মতো সম্পর্ক গড়ে তুলতে হবে, এতে সন্তানদের সমস্যাগুলো তারা বুঝতে পেরে সেগুলো সমাধান করতে পারেন। ফলে ছেলেমেয়েরা বিপদ সম্মুখিন হওয়ার আগে বাবা-মায়েরা সতর্কতা হতে পারেন।
বৃহস্পতিার (১৭ অক্টোবর) সকাল ১০টায় খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের আয়োজনে মাদক বিরোধী গণসচেতনতামুলক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য তিনি এ কথা বলেন। নগরীর সিএসএস আভা সেন্টারে খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের বিভাগীয় কার্যালয়ের অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ আবুল হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ রাশেদুজ্জামান। সভায় খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমানের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আজম খান সরকারি কমার্স কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর কালিপদ মজুমদার, উপাধাক্ষ্য প্রফেসর ড. মোঃ মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা শিক্ষা অফিসার হযরত আলী। এ সময় ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কলেজিয়েট স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থী শ্রাবনী ম-ল, রূপসা স্কুলের শিক্ষার্থী সোনিয়া, আজম খান সরকারি কমার্স কলেজের বিএনসিসি আহেমেদুল কবির রিয়াজ, সরকারি সুন্দরবন কলেজের শিক্ষার্থী মুন্নি খান, প্রগতি নিরাময় কেন্দ্র পরিচালক বিধান বিশ^াস, সানমুস নিরাময় কেন্দ্রের পরিচালক আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।
সভায় প্রধান অতিথি বলেন, বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে মাদকমুক্ত সমাজ হিসেবে গড়ে তুলতে বদ্ধপরিকর। এতে দলের যেই অপকর্মের সাথে জড়িত থাকুক না কেনো কাউকে ছাড় না দেওয়ার জন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকেও তিনি নিদেশর্না দিয়েছেন। তিনি বলেন, মাদকমুক্ত সমাজ গড়ে তুলতে হলে পিতা-মাতা ভুমিকা সবচেয়ে বেশি রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, কোন সন্তানের হঠাৎ কোন অস্বাভাবিক পরিবর্তন ঘটলে প্রথমেই আগে মা-বাবার চোখে ধরা পড়ে। তাদের সন্তানরা কাদের সাথে মিলামিশা করছে, কাদের সাথে আড্ডা দিচ্ছে সেগুলোর দিকে নজর রাখার জন্য অভিভাবকদের প্রতি অনুরোধ জানান।
সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য আজম খান সরকারি কমার্স কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর কালিপদ মজুমদার বলেন, প্রত্যেক কলেজে সিসি ক্যমারায় আওতায় আনতে হবে। এর ফলে কোন শিক্ষার্থীরা কলেজে এসে কি করছে, না করছে তা তদারকি করা যাবে। কলেজ ক্যাম্পাসে যাতে বহিরাগত লোকেরা এসে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটায় সে দিকও নজর রাখা যাবে। এ জন্য তিনি শহর-গ্রামে প্রত্যেকটি কলেজে সিসি ক্যামেরা আওতা আনার জন্য সকলের প্রতি অনুরোধ জানান।
সভা শেষে প্রধান অতিথি শেখ হারুনুর রশীদ মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে সকলকে শপথ বাক্য পাঠ করান। এ সময় ৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাঝে মাদক বিরোধী ডিজিটাল স্কেল বিতরন করা হয়। সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের ‘ক’ সার্কেলের পরিদর্শক হাওলাদার মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, বিভাগের গোয়েন্দা পরিদর্শক পারভীন আক্তার, উপ-পরিদর্শক মোসাদ্দেক হোসেন,উপ-পরিদর্শক একেএম হানিফসহ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারিরা।