প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনায় বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশের দ্বারপ্রান্তে

0
54

নিজস্ব প্রতিবেদক:
বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ২০১৯- বি ব্যাচের ৭৮৩ জন নবীন নাবিকদের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ সোমবার খুলনাস্থ নৌঘাঁটি বানৌজা তিতুমীর প্যারেড গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে মনোজ্ঞ কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও আকর্ষণীয় মার্চপাস্টের সালাম গ্রহণ করেন। পরে তিনি কৃতী নবীন নাবিকদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।
নৌবাহিনীর ২০১৯-বি ব্যাচের নবীন নাবিকদের মধ্যে মোঃ জুয়েল রানা, ডিই/এসএ-২/ ইউটি পেশাগত ও সকল বিষয়ে সেরা চৌকস নাবিক হিসেবে ‘নৌপ্রধান পদক’ লাভ করে। এছাড়া মোঃ লিটন, ডিই/ ইউসি/ ইউটি দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে ‘কমখুল পদক’ এবং মোঃ রবিউল হাসান, ডিই/ ইউসি/ ইউটি তৃতীয় স্থান অধিকার করে ‘তিতুমীর পদক’ লাভ করেন।
নৌপ্রধান নবীন নাবিকদের উদ্দেশ্যে তাঁর ভাষণে, মহান মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীনতার স্থপতি ও জাতির পিুা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর অসামান্য অবদানের কথা গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। সেইসাথে তিনি স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশগ্রহণকারী বীর নৌসেনা ও মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ আত্মত্যাগের কথা গভীরভাবে স্মরণ করে বলেন, জাতির পিুা বঙ্গবন্ধুর অসামান্য প্রজ্ঞা ও দূরদর্শিতা এবং পরবর্তীতে তাঁর সুযোগ্য উত্তরসুরী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনায় বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশের দ্বারপ্রান্তে উপনীত।
মনোজ্ঞ এ কুচকাওয়াজে অন্যান্যের মধ্যে সহকারী নৌপ্রধান (পার্সোনেল) রিয়ার এডমিরাল এম শাহীন ইকবাল, খুলনা নৌঅঞ্চলের আঞ্চলিক কমান্ডার রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ মুসা এবং খুলনা ও যশোর এলাকার উচ্চপদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা এবং নাবিকসহ নবীন নাবিকদের অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে খুলনা শিপইয়ার্ডে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জন্য নির্মিতব্য পাঁচটি প্যাট্রোল ক্র্যাফ্টের কিল লেয়িং (নির্মাণ কাজের উদ্বোধন) অনুষ্ঠান গতকাল বিকালে শিপইয়ার্ড প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরী।
এসময় তিনি বলেন, খুলনা শিপইয়ার্ড এ পর্যন্ত যুদ্ধ জাহাজসহ মোট ৭৩১টি জাহাজ নির্মাণ ও ২৩৩১টি জাহাজ মেরামতের কাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করেছে। ইতোমধ্যে এ প্রতিষ্ঠান দেশের মাটিতে যুদ্ধ জাহাজ অর্থাৎ পাঁচটি প্যাট্রোল ক্র্যাফ্ট এবং দুইটি লার্জ প্যাট্রোল ক্র্যাফ্ট নির্মাণ করে নৌবাহিনীকে হস্তান্তর করেছে। এর ধারাবাহিকতায় আরও পাঁচটি প্যাট্রোল ক্র্যাফ্টের কিল লেয়িং অনুষ্ঠান আজ সম্পন্ন হয়েছে।
এসময় নৌবাহিনী প্রধান অর্থনৈতিক সক্ষমতা অর্জনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে জাহাজ নির্মাণের ক্ষেত্রে নিজস্ব ডিজাইন সক্ষমতা অর্জনে খুলনা শিপইয়ার্ডের প্রতি আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সহকারী নৌবাহিনী প্রধান (ম্যাটেরিয়েল) রিয়ার এডমিরাল এম মঈনুল হক, মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম মোজাম্মেল হক ও খুলনা নেভাল এরিয়া কমান্ডার রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ মুসা। অনুষ্ঠানে স্বাগত জানান খুলনা শিপইয়ার্ড লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্যাপ্টেন এম সাজেদুল করিম।


একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here