দাকোপে পূজায় জমজমাট কেনাকাটা, ক্রেতাদের নজর স্বপ্ন শপিং বাজারে

0
432

প্রতিনিধি, দাকোপ :
দুর্গাপূজার আর মাত্র দু‘দিন বাকি। শুক্রবার (৪ অক্টোবর) ষষ্ঠীর মধ্যদিয়ে ঘটা করে শুরু হবে পূজা। বাজবে শঙ্খ। উলুধ্বনিতে মুখরিত হবে চারদিক। আনন্দে ভাসবে বাজার ও গ্রাম। ভক্তদের দর্শন দিতে স্বর্গলোক থেকে মর্ত্যলোকে আসবেন দেবী দুর্গা।

ইতিমধ্যে উৎসবের আমেজ লেগেছে গ্রাম ও শহরের বিভিন্ন পূজামণ্ডপে। ভক্তদের মাঝেও এখন উৎসবের আমেজ। ঘুরে ঘুরে দেখছেন পূজামণ্ডপগুলো। উৎসবের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের মধ্যে বিরাজ করছে দেবীকে বরণ করে নেয়ার প্রস্তুতি।

দেবীকে বরণ করে নিতে পূজায় নতুন পোশাক না হলে কি চলে! পরিবারের সবার নতুন পোশাক চাই। তাই পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনের জন্য কেনাকাটায় ব্যস্ত সময় পার করছেন খুলনার দাকোপ উপজেলার বসবাসকারী হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা। নারী-পুরুষ, তরুণ-তরুণী থেকে শুরু করে শিশু-কিশোররা নিজের পছন্দের পোশাক কিনতে ভিড় জমাচ্ছেন দোকানে দোকানে। পুজোতে যারা গ্রামের বাড়িতে যাবেন তারা দ্রুত শেষ করছেন কেনাকাটা। উৎসব সামনে রেখে ক্রেতাদের চলছে জমজমাট কেনাকাটা। উপজেলা সদরের প্রায় সব দোকানে এখন বাড়তি ভিড়। তবে ক্রেতাদের নজর কেড়েছে স্বপ্ন শপিং বাজার নামের একটি দোকান।

চালনা বাজারের দোকানগুলো ঘুরে দেখা যায়, প্রত্যেকটিতেই চলছে পূজার কেনাকাটা। তারমধ্যে ক্রেতাদের ভিড়ে মুখরিত হয়ে উঠেছে স্বপ্ন শপিং কমপ্লেক্স দোকানটি। বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত ওই পোশাকের দোকানে ভিড়ের পরিমাণ একটু বেশি। আবুল সুপার মার্কেটের নিচ তলার ওই দোকানে তরুণীদের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে থ্রি-পিছ, অন-পিছ, লেহেঙ্গা, নরমাল পার্টি গাউন, লং গাউন বুটিকস, লং কামিজ, প্লাজু, স্কার্ট প্লাজু, কোটিসহ বাহারি রং ও নানা ডিজাইনের চোখধাঁধানো পোশাক। ছেলেদের পোশাকের ক্ষেত্রে থ্রি-কোয়ার্টার, ফোর-কোয়ার্টার প্যান্ট, জিন্স প্যান্ট, গেঞ্জি, কাতুয়া, শার্ট ও পাঞ্জাবিসহ বিভিন্ন ধরনের পোশাক।

দোকানি ও ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এবারের পূজার বাজারে মেয়েদের শাড়ি ও সালোয়ার-কামিজের চাহিদা বেশি। এরমধ্যে বিভিন্ন ধরনের কাতান, জর্জেট, সিল্ক, শিপন ও এমব্রয়ডারি দিয়ে কাজ করা ভারতীয় শাড়ির প্রতি আগ্রহ বেশি ক্রেতাদের। কদর রয়েছে বাহারি ডিজাইনের শাড়ির। ক্রেতা বুঝে যার যাই পছন্দ হোক না কেন, বেশিরভাগ ক্রেতাই আবহাওয়া উপযোগি শাড়িই কিনছেন। শরৎকাল হওয়ায় হালকা ও কম ওজনের শাড়ি বেশি বিক্রি হচ্ছে।

স্বপ্ন শপিং বাজারের স্বত্বাধিকারী আকাশ মণ্ডল খুলনাটাইমসকে বলেন, বিক্রি ভালোই হচ্ছে। পূজার কালেশানও ভালো ছিল। কাস্টমারের বেশ আনাগোনা, তবে মিডিয়াম রেজ্ঞের কাস্টমারই বেশি। অষ্টমী পর্যন্ত ব্যবসা চলবে বলে আশা করেন তিনি।