দাকোপে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধন

0
169

প্রতিনিধি, দাকোপ :
‘মৎস্য সেক্টরের সমৃদ্ধি, সুনীল অর্থনীতির অগ্রগতি’ প্রতিপাদ্য নিয়ে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৯ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) সকালে খুলনার দাকোপ উপজেলায় সপ্তাহব্যাপি মৎস্য মেলার উদ্বোধন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সংরক্ষিত নারী-৩০ (খুলনা-বাগেরহাট) আসনের সাংসদ অ্যাডভোকেট গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার।

সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাংসদ উপজেলা প্রশাসনের পুকুরে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন এবং মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে আয়োজিত বর্ণাঢ্য র‌্যালিতে নেতৃত্বে দেন। র‌্যালিটি উপজেলা পরিষদ মাঠ থেকে শুরু হয়ে সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পরিষদ চত্বরে এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ অংশ নেন।

সকাল ১১টার দিকে উপজেলা প্রশাসন ও মৎস্য অধিদপ্তরের যৌথ আয়োজনে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আবদুল ওয়াদুদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা হয়েছে। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুনসুর আলী খান, ভাইস চেয়ারম্যান গৌরপদ বাছাড়, খাদিজা আক্তার, চালনা পৌরসভার মেয়র সনৎ কুমার বিশ্বাস, ইউপি চেয়ারম্যান বিনয় কৃষ্ণ রায় ও অধ্যক্ষ অসিম কুমার থান্দার। সভায় মূল বিষয়বস্তুর ওপর আলোকপাত করেন উপজেলা জ্যেষ্ঠ মৎস্য কর্মকর্তা জয়দেব পাল।

এসময় বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির বিশেষ দিক চিংড়িচাষ ও রপ্তানি। অপরিকল্পিত চিংড়িচাষ করার পরিবর্তে পরিকল্পিত চাষ ও জলাশয়ের প্রকৃত মালিকদের মাধ্যমে মাছচাষ নিশ্চিত করতে অতীতের ন্যায় চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। মনে রাখতে হবে জমি যার ঘের তার। অবৈধভাবে চলমান খালকে বদ্ধ জলাশয়ে রূপান্তর করে আমরাই আমাদের প্রাকৃতিক পরিবেশ নষ্ট করেছি। সুন্দরবনের মধ্যে প্রায় তিন হাজার খাল রয়েছে। বিষ দিয়ে মাছ আহরণের ফলে সকল প্রজাতির মাছ ধ্বংস হচ্ছে। নদীর সঙ্গে যুক্ত খালগুলো অবৈধ দখলমুক্ত করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর সৎ, যোগ্য ও দূরদর্শী নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সবাই দেশের জন্য আন্তরিকভাবে কাজ করলে দেশ আরও এগিয়ে যাবে।