তথ্য অধিকার আইনে যেভাবে মিলবে নানান দপ্তরের তথ্য

0
99

মারুফ গাজী: তথ্যের প্রয়োজনে বিভিন্ন দপ্তরে ছোটাছুটির তিক্ত অভিজ্ঞতা কম বেশি সকলেরই। সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরে সুনির্দিস্ট তথ্য পেতে আপাদমস্তক ঘুরে থাকেন কেউ কেউ। পক্ষান্তরে আবার অনেকে জানেন না কিভাবে তথ্য পাওয়া যাবে তার সঠিক নিয়ম কানুন।
এমন বিড়ম্বনা এড়াতে তথ্য অধিকার বিধিমালা ২০০৯ অনুযায়ী অনলাইনে একটি ফর্ম রয়েছে। ফর্মটি পূরণ করে উক্ত দপ্তরে তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা বরাবর আবেদন করলে নির্দিস্ট সময়ের মধ্যেই কাঙ্খিত তথ্য সেবা পাওয়া যাবে। নগরীর তথ্য মেলায় এই সেবার বিষয়টি সকলকে অবগত করছেন সচেতন নাগরিক কমিটি সনাক।
মেলার শেষ দিনে সনাক এর স্টলের সিনিয়র ইয়েস মো: আল আমিন খুলনাটাইমসের এ প্রতিবেদককে বলেন, তথ্য প্রাপ্তির আবেদনপত্র ফর্মটি অনলাইন থেকে ডাউনলোড করতে হবে। ফর্মে তথ্য জানতে চাওয়া দপ্তরের নাম ঠিকানা সহ আবেদনকারীর নাম, পিতা- মাতার নাম, বর্তমান ঠিকানা, স্থায়ী ঠিকানা, ইমেইল বা মোবাইল নম্বর উল্লেখ করতে হবে। তথ্যের ধরন প্রয়োজনে বিস্তারিত জানতে চাওয়ার সুযোগ রয়েছে। আবেদনকারীরা তথ্য গ্রহনের পদ্ধতি উল্লেখ করতে পারবেন। অত:পর তথ্য গ্রহনকারীর নাম, ঠিকানা সহ প্রযোজ্য ক্ষেত্রে সহায়তাকারীর নাম ঠিকানা উল্লেখ করতে হবে। ফর্মটিতে আবেদনকারীর স্বাক্ষর এবং তারিখ উল্লেখ করে দিতে হবে।
আবেদনকারীর নির্দিষ্ট নিয়মে ফর্মটি পূরণ করার পর একটি ফটোকপি সহ উক্ত কার্যালয়ে তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা বরাবর জমাপ্রদান করতে হবে এবং ফর্মের একটি রিসিভ কপি গ্রহন করতে হবে। সাধারণত কপি পাওয়ার পরবর্তী ২১ থেকে ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে আবেদনকারীকে তথ্য জানাতে হবে কার্যালয়টির। সঙ্গতকারনে তথ্য প্রদানে বিলম্ব হলে তার কারনও আবেদনকারীকে জানাতে হবে। এতকিছুর পরও কর্র্তৃপক্ষ তথ্য না জানালে আবেদনকারী তথ্য আইনে আদালতে আপিল করতে পারবেন।
এছাড়া যদি কেউ তথ্য জানতে চাওয়ার ব্যাপারে সচেতন নাগরিক কমিটি সনাক এর সাহায্য নিতে চাইলে তাদের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে সেবা প্রদান করা হয়ে থাকে এমনটাই জানিয়েছেন সনাকের কর্মীরা। মেলায় এ স্টলে কথা বলে আরো জানা যায়, শুক্র ও শনিবার ব্যতীত যে কোন দিন বিনামূল্যে এ ধরনের সেবা দিয়ে থাকেন তারা। দুদিনব্যাপি এবারের মেলায় তারা প্রায় সহস্রাধিক মানুষকে তথ্য সেবায় সহায়তা দিয়েছেন।