খুলনায় দেশের ইতিহাসে সর্ববৃহৎ টেনিস টুর্নামেন্ট উদ্বোধন আজ

0
146
????????????????????????????????????

মারুফ গাজী:
জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে গতকাল সন্ধ্যায় হাদিস পার্কে শেখ রাসেল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ টেনিস টুর্নামেন্টের ট্রফি উন্মোচন হয়েছে। আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে সকাল ১১টায় টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করবেন। খুলনার জেলা প্রশাসন এ আসরের প্রধান পৃষ্ঠপোষক।
১৮ টি দেশের ২১ টি ক্লাবের অংশগ্রহনে মাঠে গড়াবে এ টুর্নামেন্ট। অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, মঙ্গোলিয়া, কোরিয়া, থাইল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, ক্যামেরুন, ইতালি, নেপাল, শ্রীলংকা, তিউনেশিয়া, গ্রেট ব্রিটেন, তাজিকিস্তান, তুর্কমেনিস্তান, পাকিস্তান, ভূটান, ভারত, ইরাক ও স্বাগতিক বাংলাদেশ ইতিমধ্যেই খুলনায় পৌছেছেন সকল খেলোয়াড়রা। মূল পর্বের জন্য নিজেদেরকে প্রস্তুত করতে যথারীতি অনুশীলনও করছেন খেলোয়াড়রা। দেশ ও বিদেশের ক্লাব পর্যায়ের মোট ৬৫ জন টেনিস প্লেয়ার এ প্রতিযোগীতায় অংশ নিচ্ছেন। যার মধ্যে ১০ জন নারী খেলোয়াড়ও রয়েছেন। পুরুষ একক, নারী একক এবং পুরুষ দ্বৈত এই তিন বিভাগে খেলা অনুষ্ঠিত হবে। খেলা পরিচালনায় থাকবেন দেশী বিদেশী বিচারক। টুর্নামেন্টের সবগুলো ম্যাচই নগরীর বিভিন্ন টেনিস গ্রাউন্ড মাঠে অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৯ টা থেকে রাত ১০ টার মধ্যে বিভিন্ন টেনিস গ্রাউন্ডে মাঠে অনুষ্ঠিত হবে।
বাংলাদেশের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় এ আন্তর্জাতিক টেনিস টুর্নামেন্টের জন্য বাজেট বরাদ্দ হয়েছে প্রায় ৩ কোটি টাকা। গতকাল বিকালে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে খুলনা সার্কিট হাউস সম্মেলনকক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এসকল তথ্য জানিয়েছেন খুলনার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন। সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট উপলক্ষে সকল প্রস্তুতি শেষপর্যায়ে। বিস্তৃত এলাকাজুড়ে খেলোয়াড়দের জন্য সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে যথেষ্ট তৎপর রয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সকল বাহিনী। অত্র টুর্নামেন্টকে কেন্দ্র করে সার্কিট হাউজ মাঠে শেখ রাসেল আন্তর্জাতিক টেনিস গ্রাউন্ড নির্মাণ করা হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, সংসদ সদস্য সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল, সংসদ সদস্য আব্দুস সালাম মূর্শেদী, পুলিশ কমিশনার খন্দকার লুৎফুল কবির ও প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা সহ বিভিন্ন মিডিয়ায় কর্তব্যরত সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
মূল পর্বের খেলাগুলো খুলনা সার্কিট হাউস শেখ রাসেল ইন্টারন্যাশনাল টেনিস গ্রাউন্ড, অফিসার্স ক্লাব টেনিস গ্রাউন্ড, খুলনা ক্লাব টেনিস গ্রাউন্ড, খুলনা বিশ^বিদ্যালয় টেনিস গ্রাউন্ড ও খুলনা ডিআইজি টেনিস গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও অতিরিক্ত হিসেবে জাহানাবাদ ক্যান্টনমেন্ট টেনিস গ্রাউন্ড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। প্রতিটি ম্যাচ শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের খেলার ফলাফল জানাতে খুলনা সার্কিট হাউস এবং অফিসার্স ক্লাবে দুইটি নিয়ন্ত্রণ কক্ষ সার্বক্ষণিক কাজ করবে।