কয়রায় বিধ্বস্ত বেঁড়িবাধ পরিদর্শনে সাংসদ বাবু  ও পানি সম্পদ মন্ত্রালয়ের সচিব

0
239

ওবায়দুল কবির সম্রাট : কয়রা:-
সুপার সাইক্লোন ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের বিধ্বংসী তান্ডবে বাংলাদেশের সর্বদক্ষিণের জনপদ সুন্দরবন উপকূলীয় কয়রা উপজেলার ৫৫  কি.মি. পাউবোর বেড়িবাঁধ বিধ্বস্ত হয়ে  ৪টি ইউনিয়নের ৩০গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। স্থানীয় জনগণ স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবুর হস্তক্ষেপে প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে স্থানীয় জনগণ স্বেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমে  বাধের কিছু কাজ করছে পাউবোর ভাঙ্গা বেড়িবাঁধ এখনও আটকানো সম্ভব হয়নি ।  প্রবল জোয়ারে প্রতিদিন নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। বিলিন হচ্ছে ঘরবাড়িসহ ফসলি জমি,।পানিবন্দি হয়ে পড়ছে লক্ষাধিক মানুষ।
শনিবার ২৩ মে সকালে কয়রা উপজেলায় সুপার সাইক্লোন ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ৪টি ইউনিয়নের বিধ্বস্ত ১৩ টি বেড়িবাঁধ ও প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন করেন খুলনা -৬ সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু, পানি সম্পদ মন্ত্রালয়ের সচিব  কবির বিন আনোয়ার ও জনপ্রশাসন মন্ত্রালয়ের সচিব মোঃ ইউসুফ হারুন। পরিদর্শন কালে পানি সম্পদ সচিব কবির বিন আনোয়ার বলেন, নদী ভাঙন ঠেকাতে এবং নদীর নাব্যতা ফিরিয়ে আনতে সরকার নদীখনন ও তীররা কর্মকাণ্ডে মেগা প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এ মেগা প্রকল্পে কয়রা ও রয়েছে।সেটা সম্ভব হয়েছে আপনাদের স্থানীয় এমপি বাবুর পরিশ্রমে। আমরা আপনাদের দুঃখের কথা তার মুখ থেকে শুনেছি ব্যক্তিগত ভাবে এবং জাতীয় সংসদে টিভির পর্দায় । এ প্রকল্পের আওতায় কয়রা উপজেলার বিভিন্ন ভাঙ্গন প্রবণ এলাকা টেকনিক্যাল কমিটির সার্ভে রিপোর্টের মাধ্যমে কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে । এটি নিঃসন্দেহে অনেক বড় প্রকল্প যেটার মাধ্যমে কয়রা বাসী পাবে টেকসই বেড়িবাঁধ।তবে এটি সময় সাপেক্ষ্য। ধর্য্য ধরতে হবে এলাকাবাসীকে। বর্তমান ভাঙ্গা বেঁড়িবাধ সম্পর্কে তিনি বলেন,আমরা ইতি মধ্যে স্থানীয় সংসদ সদস্যের আগ্রহে কয়রায় বড় বড় ভাঙ্গা বেঁড়িবাধ গুলো বাংলাদেশ সেনা বাহিনীর মাধ্যমে বাঁধ নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়েছে। অতি দ্রুত পানি আটকানো সম্ভব হবে। সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ বেড়িবাঁধ মেরামত ও নদীভাঙ্গন রোধে আমি দক্ষিণ অঞ্চলের অভিবাবক মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর চাচাতো ভাই  শেখ হেলাল হোসেন এমপি, পানি সম্পদ মন্ত্রী সকলের সাথে কথা বলেছি কয়রার মানুষের দুর্দশা লাঘবে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে সরকার দ্রুত পদক্ষেপ নিবে। ইতিমধ্যে একটি প্রকল্প অনুমোদনের কাজ চলছে । দ্রুত সময়ের মধ্যে এসব নদীভাঙ্গন এলাকায় টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ করা হবে ইনশাল্লাহ । সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু নদী ভাঙ্গন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণসহ আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত ও ভাঙ্গনে প্লাবিত পরিবারে মাঝে সার্বিক সহায়তা করাসহ  নানাবিধ প্রতিশ্রুতি দেন ভাঙ্গন কবলিত মানুষদের। এসময় উপস্থিত ছিলেন, সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক মোস্তফা কামাল,অতিরিক্ত অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক গোলাম মঈনুদ্দীন হাসান,পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলি মোঃ আবুল হোসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিমুল কুমার সাহা,পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুজ্জামান খান, কয়রা  উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি জি এম মোহসিন রেজা,সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম বাহারুল ইসলাম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ জাফর রানা,  ইউপি চেয়ারম্যান সরদার নূরুল ইসলাম কোম্পানী, এইচ এম হুমায়ুন কবির, আব্দুল্লাহ আল মামুন লাভলু,জেলা যুবলীগ নেতা শামীম সরকার,  কয়রা উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শরিফুল ইসলাম টিংকু, সাধারন সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) আমিনুল হক বাদল প্রমূখ।


একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here