কয়রায় করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ  পরিবারের মাঝে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মতিয়ারের খাদ্য দ্রব্য  বিতরন

0
143

ওবায়দুল কবির(সম্রাট):কয়রা(খুলনা)প্রতিনিধি:
বিশ্বব্যাপী বর্তমানে মহামারি আকারে ধারন করছে করোনা ভাইরাস নামক মরন ব্যাধি।যা বাংলাদেশে ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। বর্তমান সরকার এ ভাইরাস প্রতিরোধে নানা কর্মসূচি গ্রহন করেছে। তারই ধারাবাহিকতা হিসেবে অঘোষিত লকডাউন গোটা বাংলাদেশ। এ লকডাউন ঘোষনায় গ্রাম অঞ্চলের নিম্নমধ্যবিত্তদের বাড়ি থেকে বের হওয়া বন্ধ হওয়ায় তারা বিপাকে পড়েছেন। এসময় খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন উত্তর বেদকাশি ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক সরদার মতিয়ার রহমান ও তার একমাত্র সন্তান আবুল কালাম আজাদ (কাজল)। কয়রায় মরণব্যাধী করোনার কারনে ক্ষতিগ্রস্থ দিনমজুর ও দুস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী এবং মাক্স ও সাবান বিতরণ করেছেন তিনি ।সরদার মতিয়ার রহমানের নিজ উদ্যোগে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ ভ্যান চালক,চা বিক্রেতা,দীন মজুর ও শ্রমজীবি ৮ শ অসহায় মানুষের
মাঝে পর্যায়ক্রমে ত্রান সামগ্রী বিতরন করবেন । গতকাল শুক্রবার বিকাল ৪ টায় কাছারীবাড়ি বট তলায় পরিবার প্রতি চাল, আলু, ডাল, পেয়াজ, সাবান ও লবন ক্ষতিগ্রস্থদের হাতে তুলে দিয়ে এ কার্যক্রমের উদ্ধোধন করেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সরদার মতিয়ার রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক ইউপি
চেয়ারম্যানের একমাত্র পুত্র আবুল কালাম আজাদ (কাজল) সহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার লোকজন। খাদ্য সামগ্রী সামগ্রী বিতরনকালে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান সরদার মতিয়ার রহমান সাংবাদিকদের জানান,
সরকারের পাশাপাশি  ব্যক্তিগত ভাবে  কয়রা উত্তর বেদকাশি ইউনিয়নের ৯ ওয়ার্ডে সকল শ্রেণী পেশার শ্রমজীবী,হতদরিদ্র পরিবারের  মাঝে  খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিচ্ছি পর্যায় ক্রমে সকলকে পৌছে দেওয়া হবে। এবং তিনি যে কোন পরিস্থিতে উত্তর বেদকাশি মানুষের  বিপদে আপদে সর্বদা আমি পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন। এছাড়া সমাজের বিত্তবানদের প্রতি সমাজের দরিদ্র জনগোষ্ঠির পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান তিনি ।