কেন্দ্রের সাথে সকল সম্পর্ক ছিন্ন খুলনা জেলা ও নগর বিজেপি’র

0
157

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ব্যারিস্টার আন্দালিব পার্থের ২০দলীয় জোটের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করাকে বিজেপি’র স্থানীয় দু’টি শাখা অগণতান্ত্রিক ও গণমানুষের আকাঙ্খা বহির্ভূত বলে আখ্যায়িত করেছেন। খুলনা জেলা ও নগর শাখা বিজেপি’র কেন্দ্রের সাথে সকল সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। তারা স্থানীয় ২০দলীয় জোটের সাথে সকল কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বিএনপি নেতৃত্বাধীন বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের ইফতার মাহফিলে বিজেপি’র অংশ গ্রহনের মধ্যদিয়ে তাদের অবস্থান স্পষ্ট করেছে।
জেলা ও নগর বিজেপি’র এক রুদ্ধদ্বার বৈঠক গত সোমবার অনুষ্ঠিত হয়। স্থানীয় শীর্ষপর্যায়ের নেতৃবৃন্দ বৈঠকে উপস্থিত থেকে দলীয় প্রধানের বিবৃতির সাথে দ্বিমত পোষণ করে সকল সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। তারা স্পষ্ট বলেছেন, রাজনৈতিক এই দুর্যোগের মধ্যে ২০দলের শক্তি খর্ব হলে গণমানুষের গণতান্ত্রিক আন্দোলন সফল হবে না। এতে গণতন্ত্রমনা রাজনৈতিক দলগুলোর ক্ষতি সম্মুখীন হবে।
নগর বিজেপি’র সভাপতি এ্যাড. লতিফুর রহমান লাবু বলেন, এ মুহুর্তে দলীয় প্রধানের বিবৃতি বৃহত্তর স্বার্থ ও গণতান্ত্রিক আন্দোলনের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে দাড়িয়েছে। যে সময়ে বিরোধী দল রাজনৈতিক হামলা-মামলার শিকার সেসময়ে দলীয় প্রধানের বিবৃতি সরকারের স্বার্থকে সংরক্ষণ করেছে। দুঃসময়ে জোট ত্যাগ করা কাপুরুষের মনোভাব বলে তিনি আখ্যায়িত করেন। দলীয় প্রধানের বিবৃতি গণমানুষের আন্দোলনের পরিপন্থী। সিটি করপোরেশন ও একাদশ জাতীয় নির্বাচনে মানুষ ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে না পারায় ক্ষুব্ধ হয়ে বিরোধী শিবিরে সমর্থন দিয়েছে। ১৫ কোটি মানুষের স্বার্থে আরো ত্যাগ স্বীকার এবং বিএনপির সাথে দুরত্ব কমানোর জন্য উদ্যোগ নেয়া দরকার। তিনি আরও বলেন, এখন গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের লড়াই চলছে। বিরোধী দলের বিপর্যয়ের মধ্যে মান-অভিমান চলে না। তাদের এই বক্তব্যের সাথে জেলা শাখাও একমত পোষন করেছে। ব্যারিস্টার পার্থের বিবৃতির পর বিজেপি’র স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বিএনপি’র সাথে সম্পর্ক রক্ষা করেই চলেছে। বিএনপি’র সহযোগী সংগঠনগুলোর ইফতার মাহফিলের বিজেপি’র উপস্থিতি পরিলক্ষিত হচ্ছে। স্থানীয় নেতৃবৃন্দের বক্তব্য স্পষ্ট তারা ২০দলীয় জোটের সাথে থাকবেন।
উল্লেখ্য করা যেতে পারে গেল বছরের ১৫ মে কেসিসি ও ৩০ ডিসেম্বরের একাদশ জাতীয় নির্বাচনে খুলনায় বিজেপি’র জেলা ও মহানগর শাখা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ২০দলের সাথে সক্রিয় ভূমিকা নেয়।