ইউরো বাছাই : ইতালি-স্পেনের জয়

0
27

খুলনাটাইমস স্পোর্টস: ইউরো ২০২০ ফুটবল বাঁছাইয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছে স্পেন ও ইতালী। দুটি দলই রোববার গ্রুপ পর্বের ম্যাচে জয়লাভ করেছে। স্পেন ৪-০ গোলে ফারাও আইল্যান্ডকে এবং ইতালি ২-১ গোলে ফিনল্যান্ডকে পরাজিত করে। এই জয়ে বাছাইপর্বে এখনো পর্যন্ত শতভাগ সাফল্য ধরে রেখেছে দল দুটি। গিজনে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ফারাও আইল্যান্ডের বিপক্ষে স্পেনের হয়ে দুটি করে গোল করেন রড্রিগো ও প্যাকো আলকাসের। স্প্যানিস অধিনায়ক সার্জিও রামোস জাতীয় দলের হয়ে ১৬৭তম ম্যাচে খেলার মাধ্যমে ভাগ বসিয়েছেন দেশের হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলা ইকার ক্যাসিয়াসের রেকর্ডে। ‘এফ’ গ্রুপের হয়ে ষষ্ঠ ম্যাচে টানা এই জয়ে শতভাগ ১৮ পয়েন্ট লাভ করেছে স্পেন। তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা সুইডেনের চেয়ে ৭ পয়েন্ট বেশী। এদিন সুইডেন ১-১ গোলে ড্র করেছে নরওয়ের সঙ্গে। গ্রুপের আরেক ম্যাচে রোমানিয়া ১-০ গোলে হারিয়েছে মাল্টাকে। তারপরও সুইডেনের চেয়ে এক পয়েন্টে পিছিয়ে থেকে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে তারা। প্রতিটি গ্রুপের শীর্ষ পয়েন্টধারী দুটি দল সরাসরি মুল টুর্নামেন্টে অংশগ্রহনের সুযোগ পাবে। চার ম্যাচ বাকী থাকতেই দল বছাইপর্বের একেবারেই দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যাওয়া প্রসঙ্গে স্প্যানিশ কোচ রবার্ট মরেনো বলেন,‘ হ্যাঁ, আমরা বলতে গেলে বাঁছাই হয়ে গেছি। তবে গানিতিক নিয়মে এখনো হইনি। বাকী সবগুলো ম্যাচে জয়ের মাধ্যমে আমরা আমাদের দলকে আরো এগিয়ে নিতে চাই। তবে হ্যাঁ, আমাদের মুল লক্ষ্য অবশ্যই কোয়ালিফাই হওয়া।’ সদ্য পদত্যাগ করা স্পেন জাতীয় দলের কোচ লুইস এনরিখের ৯ বছর বয়সি কন্যার অকাল মৃত্যুতে তার স্মরণে যথারিতি এক মিনিট নীরবতা পালনের মাধ্যমে লড়াইয়ে নামে স্পেন। ক্যান্সার আক্রান্ত এই মেয়ের সুশ্রুশার জন্যই গত জুনে কোচের দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন এনরিখ। ফলে তার স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন মরেনো। কোচের স্থায়ী আসন গ্রহনের পর গত বৃহস্পতিবার রোমানিয়ার বিপক্ষে বাছাইপর্বের ম্যাচ দিয়ে নতুন ক্যারিয়ারের সুচনা করেন তিনি। ওই ম্যাচের একাদশে ১০টি পরিবর্তন এনেছিলেন মরেনো। শুধু মাত্র রামোস তার জায়গায় অপরিবর্তিত ছিলেন। ম্যাচে ২-১ গোলে জয়লাভ করে স্পেন। রোববার রাতে অবশ্য লিড নিতে খুব বেশী সময় নেয়নি স্বাগতিক স্পেন। ম্যাচের ১৩ মিনিটে অফসাইডের ফাঁদকে পাশ কাটিয়ে প্রতিপক্ষের রক্ষনভাগের জটলা থেকে আলতো টোকায় গোল করে স্পেনকে এগিয়ে নেন রড্রিগো। বিরতির পর ৫ মিনিটের মধ্যেই ফের গোল করে স্পেনকে দ্বিগুন ব্যবধানে পৌঁছে দেন ভ্যালেন্সিয়ার এই স্ট্রাইকার। ম্যাচের অন্তিম সময়ে দুটি গোল করে স্পেনকে বড় ব্যবধানের জয় এনে দেন বদলী খেলোয়াড় আলকাসের। ৮৯ মিনিটে গোলপোস্টের সামনে থেকেই ফ্লিক করে গোল করেন তিনি। পরের মিনিটেই থিয়াগো আলকচানতারার নীচু ক্রসের বলে দর্শনীয় হেডে গোল করেন তিনি।
ইতালীকে সঠিক পথেই রেখেছেন জর্জিনহো
এদিকে ইউরো বছাইয়ে ইতালীও তাদের শতভাগ সফলতা ধরে রেখেছে। শেষ দিকে পেনাল্টি থেকে জর্জিনহোর গোলটি ইতালীকে টানা ষষ্ঠ জয় এনে দেয়। যার মাধ্যমে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ফিনল্যান্ডের বিপক্ষে ২-১ গোলে জয়লাভ করে ইতালী। টেম্পেরেয় অনুষ্ঠিত ম্যাচের ৭৯তম মিনিটে চেলসি মিডফিল্ডারের জয়সুচক গোলটি রবার্তো মানচিনির দলকে টানা ষষ্ঠ জয় এনে দেয়। ‘জে’ গ্রুপের ম্যাচে এই জয়ের ফলে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ফিনল্যান্ডের সঙ্গে ছয় পয়েন্টের ব্যবধান রচনা করেছে ইতালী। এর আগে ৫৯ মিনিটের সময় গোল করে ইতালীকে এগিয়ে দেন সিরো ইমোবিল। তবে ৭২ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোলটি পরিশোধ করে দেন দারুন ফর্মে থাকা নরউইচ সিটির স্ট্রাইকার টিমু পুক্কি। খেলা শেষে ল্যাৎসিও স্ট্রাইকার ইমোবিল বলেন,‘ জাতীয় দলের জার্সি পড়ে গোল না পাওয়ায় আমি চাপ অনুভব করছিলাম। তবে জানতাম সময় আসবেই। আজ (রোববার) রাতের ম্যাচটি খুব সহজ ছিলনা। তবে আমরা ভালই করেছি। আমরা খুশি হয়েছি। বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ বঞ্চিত হবার পর আমরা ফের শক্তি সঞ্চার করতে শুরু করেছি।’ বাছাই পর্বে পূর্ণ ১৮ পয়েন্ট সংগ্রহ করতে পেরে চার বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা এখন যেন আকাশে উড়ছে। বাছাইপর্বে এখনো চারটি ম্যাচ তাদের হাতে রয়েছে। এর আগে রোববার অনুষ্ঠিত গ্রুপের অন্য ম্যাচে ইতালীর চেয়ে ৯ পয়েন্টে পিছিয়ে থেকে তালিকার তৃতীয় স্থানে থাকা আরমেনিয়া ৪-২ গোলের রোমঞ্চকর এক জয় পেয়েছে বসনিয়া ও হার্জেগোবিনার বিপক্ষে। এখন আগামি মাসে গ্রীস কিংবা লিচেনস্টেইনের বিপক্ষে জয় দিয়ে মুলপর্বে আসন পাবার সুযোগ রয়েছে তাদের। উল্লিখিত দল দুটি রোববার এথেন্সে ১-১ গোলে ড্র করেছে। ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচে জিব্রাল্টারকে ৪-০ গোলে হারিয়ে ইউরোতে কোয়ালিফাই হবার সম্ভাবনা জাগিয়ে রেখেছে সুইজারল্যান্ড। বাছাইপর্বে ৫ ম্যাচ খেলে ফেলার পরও এখনো কোন পয়েন্ট বা গোলের দেখা পায়নি জিব্রাল্টার। এই জয়ে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থাকা ডেনমার্কের চেয়ে এক পয়েন্টে পিছিয়ে রয়েছে সুইজারল্যান্ড। এদিন জর্জিয়ার সঙ্গে গোলশুন্য ড্র করেছে ডেনমার্ক। এই গ্রুপে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে রয়েছে ৫ ম্যাচ থেকে ১১ পয়েন্ট সংগ্রহ করা আয়ারল্যান্ড প্রজাতন্ত্র। আগামী মাসে কোপেনহেগেনে ডেনমার্কের মোকাবেলা করবে সুইসরা। এরপর জেনেভায় আয়ারল্যান্ডেকে আতিথেয়তা দিবে তারা।


একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here