আরো ১৭৬ সেনাকে আটকের নির্দেশ

0
35

খুলনাটাইমস ডেস্ক: তুরস্কের ১৭৬ জন সেনা সদস্যকে আটক করার নির্দেশ দিয়েছেন সে দেশের প্রসিকিউটররা। ২০১৬ সালের সামরিক অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে ওই সেনাদের গ্রেপ্তারের এ নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যম আল জাজিরা। এসব সেনা সদস্যদের মধ্যে ১৪৩ জনই লেফটেন্যান্ট এবং এদের ৯৭ জন এখনও চাকুরি করছেন। বাকি ৩৩ জন জুনিয়র লেফটেন্যান্ট এবং এদের ১১ জনই বর্তমানে সেনা হিসাবে কাজ করে যাচ্ছে। এছাড়া যুদ্ধবিমান এফ-১৬’র ছয় পাইলটকেও গ্রেপ্তার করার নির্দেশ দিয়েছেন তুরস্কের প্রসিকিউটরা। প্রেসিডেন্ট রেসেপ তায়েপ এরদোয়ানকে ক্ষমতাচ্যুত করতে ২০১৬ সালে সামরিক অভুত্থানের একটি ব্যর্থ প্রচেষ্টা চালায় বিদ্রোহী তুর্কি সেনাদের একাংশ। ওই অভুত্থান প্রচেষ্টার জন্য শুরু থেকেই যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাসনে থাকা ধর্মীয় নেতা ফেতুল্লাহ গুলানকে দায়ী করে আসছে আঙ্কারা সরকার। যদিও এতে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন ওই নেতা। ২০১৬ সালের ওই অভ্যুত্থানের ঘটনায় আড়াইশ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়েছিলেন। তবে এতে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের কোনো ক্ষতি হয়নি। এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে তুরস্কের হাজার হাজার সেনা ও সরকারি কর্মকর্তাকে আটক করা হয়েছে। চাকরিচ্যুত বা বরখাস্ত করা হয়েছে আরো অনেককে। অভ্যুত্থানের দীর্ঘ ৩ বছরেরও বেশি সময় পর নতুন করে আরো ১৭৬ জন সেনা সদস্যকে গ্রেপ্তারের উদ্যোগ নিল তুর্কি সরকার। তুরস্কের সরকারি সংবাদ মাধ্যমের বরাত দিয়ে আল জাজিরা আরো জানায়, ওই সেনা সদস্যদের গ্রেপ্তারের জন্য গতকাল মঙ্গলবার দেশের ৪৯টি প্রদেশে অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। তবে অভিযানে কোনো সেনা সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে কিনা সে বিষয়ে কিছু জানায়নি সংবাদ মাধ্যমটি।


একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here