আম্ফানের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্থ দুবলারচরের সাইক্লোন শেল্টারটি সাগরে বিলীনের উপক্রম

0
117

শরণখোলা আঞ্চলিক অফিস:
সুপার সাইক্লোন আম্ফানের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্থ দুবলারচরের মেহেরআলী সাইক্লোন শেল্টারটি বঙ্গোপসাগরে বিলীন হবার উপক্রম হয়েছে। সাগরের ঢেউয়ে শেল্টারের ফ্লোর ধসে গিয়ে বিল্ডিংয়ের মুল ভিত বের হয়ে পড়েছে। ভবনের দেয়ালে ফাটল ধরেছে।
দুবলা ফিসারমেন গ্রæপের সভাপতি কামাল উদ্দিন আহমেদ জানান, ঘূর্ণীঝড় আম্ফানের বায়ুতাড়িত সাগরের প্রচন্ড ঢেউয়ের আঘাতে দালানটির ফ্লোর ভেঙ্গে মুল ভিত বের হয়ে গেছে। ফলে শেল্টারটি সাগরে বিলীনের মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে। এমনিতেই ঘূর্ণীঝড় সিডরের আঘাতে শেল্টারটি নাজুক অবস্থায় ছিলো। যে কারণে আ¤ফান ঝড়ের ক্ষতি থেকে রক্ষায় শেল্টারটিতে থাকা র‌্যাব- ৬ এর সদস্যরা ঝড়ের আগেই শেল্টারটি ছেড়ে নিকটস্থ কোষ্টগার্ডের ক্যাম্পে নিরাপদে আশ্রয় নেয়। তিনি আরো বলেন, ১৯৯৬ সালে ইতালীর কারিতাস সংস্থার নির্মীত মেহেরআলীচরের সাইক্লোন শেল্টারটি ঝড় দূর্যোগের সময় দুবলারচরের জেলেদের একমাত্র আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এলিট ফোর্স র‌্যাব সদস্যরাও অস্থায়ী ক্যাম্প হিসেবে শেল্টারটি ব্যবহার করে থাকেন । এ শেল্টারটি রক্ষা করা না গেলে ঝড়ের সময় জেলেদের আশ্রয় নেয়ার আর কোন জায়গা থাকবেনা । এ ছাড়া দুবলা অঞ্চলের অন্যান্য সাইক্লোন শেল্টার গুলোও ঝুকিঁপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে বলে তিনি জানান।
পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ বেলায়েত হোসেন বলেন, সুন্দরবনের দুবলারচরের মেহেরআলী, আলোরকোল, শেলারচরে কারিতাস জেলেদের জন্য সাইক্লোন শেল্টার নির্মাণ করে দুবলা ফিসারমেন গ্রæপের কাছে বুঝিয়ে দিয়েছিলো এবং তারাই শেল্টার ব্যবহার ও দেখভাল করে থাকে। বন বিভাগও মাঝে মধ্যে ব্যবহার করে। শেল্টার গুলো জরাজীর্ণ ও ঝুঁিকপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে বলে তিনি জানান।



একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here